দাগ নম্বর দিয়ে জমির মালিকানা যাচাই করুন সহজেই


আমরা অনেকেই আছি যারা কিনা জমির দাগ নম্বর আছে কিন্তু সে দাগের মালিক কে সেটা জানি না ! আবার এমনও হয় ঐ দাগে আমাদের আদি পিতা-মাতার নামেও জমি থাকে কিন্তু সেটা পুনরুদ্ধার করতে পারি না। শূধু মাত্র ডকুমেন্টসের অভাবে। তাই আজকের এই পোস্টটি আপনাদের মাঝে এমন ভাবে উপস্থাপন করবো যাতে আপনারা সহজেই দাগ নম্বর দিয়ে জমির মালিক বের করতে পারেন এবং আপনার চাহিদা মতোন আপনার দাগের কাঙ্খিত খতিয়ানটি সহজেই বের করতে পারেন। তো চলুন দাগ নম্বর দিয়ে কিভাবে সহজেই জমির মালিক বের করবেন তা নিয়ে আলোচনা শুরু করা যাক। 

দাগ নম্বর দিয়ে জমির মালিকের নাম বের করুন

এই আধুনিক যুগে সরকার এমন এক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে, যাতে আপনি সহজেই ঘরে বসে আপনার হাতে থাকা স্মার্ট  ফোনটির মাধ্যমে কাঙ্খিত দাগ নম্বর দিয়ে জমির মালিক কে সেটা জানতে পারবেন। দাগ নম্বর দিয়ে জমির মালিকের নাম বের করার জন্য নির্দিষ্ট কিছু ধাপ অবলম্বন করতে হবে।  নিচে সেই ধাপ গুলো পর্যায়ক্রমে আলোচনা করা হলো ঃ    

জমির মালিকের নাম বের করার নিয়ম

বর্তমানে বাংলাদেশের সকল বিভাগ, জেলা, উপজেলা ও মৌজার দাগ নম্বর দিয়ে জমির মালিকের নাম বের করা যাচ্ছে। সার্টিফািইড কপি/নকল/অনলাইন কপির জন্য আবেদন প্রক্রিয়াও জানতে পারবেন এই পোস্টটির মাধ্যমে। 

দাগ নম্বর দিয়ে জমির মালিকের নাম বের করার সঠিক নিয়ম

ভূমি মন্ত্রনালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে জমির মালিকের নাম বের করার সম্পূর্ণ পদ্ধতি নিচের ধাপ অনুসারে দেখানো হলো। স্মার্ট মোবাইল এবং কম্পিউটার উভয় ডিভাইস দিয়ে একই পদ্ধতিতে জমির মালিকের নাম বের করতে পারবেন । 

ধাপ-১ দাগ নাম্বার দিয়ে জমির মালিকের নাম বের করতে প্রথমে  https://eporcha.gov.bd/ এই লিংকে ক্লিক করে ভূমি মন্ত্রনালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। 

ধাপ-২ একটু স্কল করে নিচে গিয়ে অথবা ‘‘সার্ভে  খতিয়ান/নামজারি খতিয়ান’’ অপশেন ক্লিক করে প্রবেশ করতে হবে। 

ধাপ-৩ নামজারি খতিয়ান -- অনলাইনে আবেদন মেনু থেকে যথাক্রমে আমরা যেই জমির মালিকের নামের জমির দাগ দেখতে চাই সে স্থানের বিভাগ, জেলা, উপজেলা ও মৌজা সিলেক্ট করবো। 

ধাপ-৪ পরবর্তীতে মৌজা নাম সিলেক্ট করে খতিয়ান নং অথবা মালিকের নাম বা মালিকের নামের নিচের অংশ থেকে দাগ নং বসিয়ে খতিয়ান সংগ্রহ করতে পারবেন। উল্লেখ্য যে, মৌজা অপশনে সিলেক্ট করলে ক্রমিক নং অনুযায়ী খতিয়ান নাম্বার দেখাবে। আপনি চাইলে আপনার নাম প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত খুঁজে নিতে পারবেন।  

ধাপ-৫ উপরে তথ্যগুলো পুনরায় যাচাই করে আপনার কাঙ্খিত নামের উপর ডাবল ক্লিক করুন। একটু সময় নিয়ে আপনাদের কাঙ্খিত জমির মালিকের নামের খতিয়ান নং, দাগ নং, জমির পরিমান, অবশিষ্ট এসব তথ্য গুলো  শো করবে আপনার কম্পিউটারে বা মোবাইলে।  



উপরে উল্লেখিত পদ্ধতি অবলম্বন করে খুব সহজেই দাগ নাম্বার দিয়ে জমির মালিকের নাম দেখে নিতে পারবেন। সার্টিফাইড/অনলাইন কপির জন্য আবেদন করতে চাইলে নিচের দেখানো পদ্ধতি অনুসরণ করুন।      

সার্টিফাইড/অনলাইন কপির জন্য আবেদন

অনলাইনের মাধ্যমে খতিয়ানের সার্টিফাইড/অনলাইন/নকল কপির জন্য আবেদন করতে অনুসন্ধান প্রক্রিয়া শেষ হলে খতিয়ান এর নিচে থাকা “খতিয়ান আবেদন’’ বাটনে ক্লিক করুন। এরপর আপনাকে নিচের ছবির মতো একটি পেইজে নিয়ে আসা হবে। 

খতিয়ানের সার্টিফাইড/অনলাইন কপির জন্য আবেদন করতে প্রয়োজনীয় তথ্য যেমন ঃ

১. 👉 ডেলিভারির মাধ্যম (আপনারা চাইলে অনলাইন কপি অথবা ডাকযোগের মাধ্যমে সার্টিফাইড কপি ডেলিভারি নিতে পারেন) 
২. 👉 জাতীয় পরিচয় পত্রে থাকা ইংলিশ নাম এবং জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার
৩. 👉 ই-মেইল এবং মোবাইল নাম্বার (অবশ্যই খেয়ার রাখতে হবে  মোবাইল  নাম্বার  যদি  আগে অন্য এনআইডির সাথে নিবন্ধন থাকে তাহলে ওইটা দেওয়া যাবে না, নতুন  মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করতে হবে)
৪. 👉 সম্পূর্ণ ঠিকানা অর্থাৎ আপনি যে ঠিকানায় সার্টিফাইড কপিটি  ডেলিভারি নিতে চাচ্ছেন
৫. 👉 গাণিতিক ক্যাপচা যোগফল প্রদান করুন
৬. 👉 পেমেন্ট বিবরণী সিলেক্ট করুন
৭. 👉 তারপর উইন্ডো থেকে আপনার অনলাইন খতিয়ানটি ডাউনলোড করে নিন। 

উক্ত পদ্ধতিতে খুব সহজে অনলাইনে ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে দাগ নাম্বার দিয়ে জমির মালিকের নাম বের করতে পারবেন। এবং সার্টিফাইড বা অনলাইন কপির জন্য খুব সহজেই আবেদন করতে পারবেন। 

প্রিয় পাঠক, এরকম ধরনের আরো নতুন নতুন পোস্ট পাইতে আমাদের ওয়েবসাইটি নিয়মিত ভিজিট করুন। ধন্যবাদ। 
 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url