পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক - পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক কি আমরা অনেকেই জানিনা। আপনি কি জানতে চান পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক ও পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন এগুলো কি বা কিভাবে করতে হয়। পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক - পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন আজকের এই আর্টিকেলটিতে আপনি জানতে পারবেন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করার নিয়ম , পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কি কি লাগে , পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কত দিনে পাওয়া যায় , পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কত টাকা লাগে , পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কিভাবে নিতে হয় , পুলিশ ক্লিয়ারেন্স হেল্পলাইন নাম্বার ইত্যাদি বিষয় সম্পর্কে।

চলার পথে অনেক সময় আমাদের পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট এর প্রয়োজন হয়। বাংলাদেশের নাগরিকদের জন্য দেয়া পুলিশ প্রশাসনের অন্যতম একটি সেবা হচ্ছে পুলিশ ভেরিফিকেশন। আর এই ভেরিফিকেশন নিয়ে আমাদের রয়েছে নানা প্রশ্ন ও দুর্বলতা। এ আর্টিকেল এর মাধ্যমে আশা করছি আপনারা সকল প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন।

পোস্ট সূচিপত্র : পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক - পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কি 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক এই পোস্টটিতে আমরা প্রথমেই জানবো পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কি। সংক্ষিপ্ত ভাবে বলতে গেলে পুলিশ ভেরিফিকেশন বা পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এমন একটি প্রক্রিয়া যাতে একটি নাগরিক এর দাপ্তরিক ক্ষেত্রে সকল তথ্য ঠিকানা যাচাই বাছাই করা হয়। জীবনের প্রত্যেকটি ধাপে বিভিন্ন জায়গায় একজন নাগরিকের নিজের তথ্য সঠিক ভাবে দিতে হয়। 

অনেক সময় সেই সকল তথ্য সঠিক আছে কিনা তা যাচাই করা দরকার হয় তখন পুলিশ ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে সব সকল তথ্য পুরোপুরি সত্য এবং নির্ভুল কিনা যাচাই বাছাই করে থাকে। অর্থাৎ একজন নাগরিকের সকল তথ্য নিশ্চিত হওয়া, সামাজিক অবস্থান, পূর্বের ইতিহাস যাচাই করাই হচ্ছে পুলিশ ভেরিফিকেশন বা পুলিশ ক্লিয়ারেন্স।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করার নিয়ম 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক - পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন এই আর্টিকেলটিতে আমরা প্রথমেই জানব পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করার নিয়ম। আমরা অনেকেই পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে পারি না কিংবা কিভাবে করতে হয় কিছুই জানিনা। এর আর্টিকেলের এ পর্যায়ে জানতে পারবেন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কিভাবে করতে হয়। সাধারণত বিদেশ যাওয়ার জন্য পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর প্রয়োজন হয়। 

অথবা দেশের অভ্যন্তরে কোন চাকরির ক্ষেত্রে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সনদ প্রয়োজন হয়। সেক্ষেত্রে আপনাকে সংশ্লিষ্ট জেলা সিটি এসবি শাখায় যোগাযোগ করতে হবে। অন্যদিকে বিদেশে যাওয়ার জন্য পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আপনাকে অবশ্যই অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। অনলাইনের মাধ্যমে কিভাবে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে পারবেন নিচে সেই ধাপগুলো আলোচনা করব।

আরো পড়ুন ৩০+ ল্যাপটপের দাম ২০২২ - ল্যাপটপের দাম ২০২২ বাংলাদেশ

প্রথম স্টেপ : একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন

প্রথমে আপনাকে কম্পিউটার অথবা আপনার মোবাইল থেকে মজিলা ফায়ারফক্স অথবা গুগল ক্রোম ব্রাউজার ওপেন করে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ওয়েবসাইট pcc.police.gov.bd ভিজিট করতে হবে। খেয়াল করে দেখবেন ওয়েবসাইটের বামপাশের রেজিস্ট্রেশন বাটন রয়েছে। রেজিস্ট্রেশন বাটন এ ক্লিক করার পর আপনি একটা ফর্ম পাবেন। 

ফর্মে যেটা যেভাবে লেখার কথা বলা রয়েছে আপনি ফরমটি সেই অনুযায়ী পূরণ করুন। ফর্মটির ইমেইল বক্সে আপনার ইমেল অ্যাড্রেস লিখুন। এটা না লিখলেও চলবে। বিদেশি নাগরিক অথবা শিশু হলে ডানপাশের ফ্রজেন অথবা চাইল্ড লোকেশন এ টিক চিহ্ন দিতে হবে। এরপর ফরমটি কন্টিনিউ করুন।


দ্বিতীয় স্টেপ ঃ মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন

এবারে মোবাইল ভেরিফিকেশন করতে হবে। ভেরিফিকেশন করার জন্য একটি কোড করে দেওয়া হবে। এভাবে আপনি যে মোবাইল নম্বরটি দিয়েছেন সেই মোবাইল নম্বর থেকে একটি এসএমএস সেন্ড করে একাউন্ট ভেরিফিকেশন করতে হবে। আপনার মোবাইল অপশনে গিয়ে > টাইপ করুন PCC<space>AV<space>6154 লিখে 26969 নম্বরে পাঠিয়ে দিন।

তৃতীয় স্টেপঃ পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর উদ্দেশ্য 

এ ধাপে আপনি একটি ম্যাসেজ পাবেন your account is successfully verified. এবারে আপনার মোবাইল নম্বর এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে sign In করুন। এপ্লাই এ ক্লিক করুন। আপনি যদি বিদেশ যাওয়ার জন্য পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করেন তাহলে go abroad এ টিক চিহ্ন দিয়ে দেশের নাম সিলেক্ট করুন।


চতুর্থ স্টেপ : ব্যক্তিগত তথ্য পূরণ

এ ধাপে আপনার পাসপোর্ট অনুসারে সকল তথ্য বসিয়ে দিন এখানে আপনার একটি পাসপোর্ট সাইজের ছবি আপলোড করতে হবে। মনে রাখতে হবে ছবিটি যেন 150 kb এরকম হয়।

পঞ্চম স্টেপ : জরুরী যোগাযোগের ঠিকানা

এ ধাপে আপনাকে পাসপোর্ট অনুসারে স্থায়ী ঠিকানা এবং যোগাযোগের ঠিকানা বসাতে হবে।


ষষ্ঠ স্টেপ : এ পর্যায়ে আপনাকে পাসপোর্টসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস আপলোড করতে হবে। যেমন জন্ম নিবন্ধন বা কাউন্সিলের প্রত্যয়ন, জাতীয় পরিচয় পত্র আপলোড করতে হবে।

সপ্তম স্টেপ : আবেদন সাবমিট করা

এবার আপনাকে সকল তথ্য যাচাই-বাছাই করে সাবধানতার সাথে বানান ঠিক করে বা চেক করে fainal Submit অপশন এ টিক দিয়ে কনফার্ম করে দিতে হবে। ব্যাস আপনার আবেদন টি কনফার্ম হয়ে গেছে।

অষ্টম স্টেপ : চালান পরিশোধ করা

সাবমিট করার পর এবার কনফার্মেশন মেসেজ পাবেন। এই পেজ থেকে আপনি অনলাইনে চালান পরিশোধ করতে পারবেন। চালান এ সাথে সাথে পেমেন্ট ভেরিফিকেশন হয়ে যায়। সে কারণে চালান এর মাধ্যমেই চালান পরিশোধ করলে সবচেয়ে ভালো হয়।

পরিশোধ করার জন্য আপনাকে Click Here to pay লেখাতে ক্লিক করতে হবে। এখানে আপনার সোনালী ব্যাংকের অনলাইন পেমেন্ট গেটওয় ওপেন হবে এবং সোনালী ব্যাংক একাউন্ট, মোবাইল ব্যাংকিং সেবা যেমন বিকাশ, রকেট, নগদ থেকে চালান পরিশোধ করা যায়।

চালানোর অর্থ পরিশোধ করার পর আপনার পেমেন্ট সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে এই ধরনের মেসেজ আপনি পাবেন। অবশ্যই চালান কপির পিডিএফ ফাইল নিজ দায়িত্বে সংরক্ষণ করে রাখতে হবে।

নবম স্টেপ : চালান ডাউনলোড এবং আপলোড

এ ধাপে আপনাকে পিডিএফ ফাইল আপলোড করতে হবে চালান আপলোড করার জন্য মাই অ্যাকাউন্ট মেনুতে যেতে হবে এবং Upload Challan বাটনে ক্লিক করতে হবে Bank name, District ইত্যাদি। অপশন সিলেক্ট করুন তারপর চালান জমার তারিখ এবং চালান নম্বর লিখে Check Challan এ সিলেক্ট করুন। আবেদনকারীর নাম দেখা গেলে বুঝবেন যে চালান আপডেট হয়ে গেছে।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কি কি লাগে 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক ও পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন আর্টিকেলটিতে এবারে আমরা আলোচনা করব পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কি কি কাগজপত্র লাগবে। আমরা অনেকেই জানিনা পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কি কি লাগে। পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কি কি লাগে চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক।

  • পাসপোর্ট এর ফটোকপি।
  • পাসপোর্ট সাইজ রঙিন ১ কপি ছবি।
  • এনআইডি অথবা জন্ম সনদ। যেটি দিয়ে পাসপোর্ট ঠিক করা হয়েছে।
  • চেয়ারম্যান সার্টিফিকেট।
  • যে অনলাইনে পূরণ করবেন সে অনলাইনে পূরণকৃত ফর্ম।
  • যে ব্যাংকে টাকা জমা দিবেন সে ব্যাংকের টাকা জমা দেয়ার রশিদ।

উল্লেখিত কাগজপত্র এর কোন টা যদি না থাকে বা জোগাড় না করা যায় তাহলে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে সমস্যা হবে। তাই সবসময় চেষ্টা করবেন সকল ডকুমেন্ট একসাথে জমা দেওয়ার জন্য।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কত দিনে পাওয়া যায় 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক - পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন হে আর্টিকেলটিতে এবারে আমরা জানবো পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কত দিনে পাওয়া যায়। আমাদের অনেকের প্রশ্ন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পেতে কতদিন সময় লাগে। বর্তমানে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কিছুটা লেট হচ্ছে। কিন্তু সরকারি সময় অনুযায়ী ৮ - ১০ দিনের মধ্যে পাওয়ার কথা। কিন্তু কিছু কিছু কারণে পেতে দেরিও হতে পারে। পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আপনাকে জেলা অথবা পুলিশ স্টেশন থেকে নিতে হবে। এক্ষেত্রে আপনাকে হাতে পেতে ১৫ -২০ দিন ও লাগতে পারে আবার ১ মাস ও লাগতে পারে।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কত টাকা লাগে 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক - পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন আর্টিকেলটিতে এবারে আমরা জানবো পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কত টাকা লাগে। আমরা অনেকেই পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কত টাকা লাগে জানিনা। আসুন আর্টিকেলে পর্যায়ে তা জেনে নেওয়া যাক।

আরো পড়ুন বাসায় গিয়ে কম্পিউটার শিখানো হয় - ঘরে বসে কম্পিউটার শিক্ষা

সচরাচর ব্যাংকে সরকারি ফি ৫০০ টাকা দিতে হয়। এই ৫০০ টাকা সোনালী ব্যাংকে চালান ফরম এর মাধ্যমে করতে হয় সোনালী ব্যাংকে। চালান ফরম টি সাথে করে রাখতে হবে। চালান ফরম টি লেখার সময় অবশ্যই চালান কোড টি সঠিকভাবে দিবেন। যে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চালান কোড টি আছে সেটি আপনি যদি না জানেন তাহলে ব্যাংক এর কর্মকর্তার কাছ থেকে জেনে নিবেন। 

এছাড়াও পাসপোর্ট এর নাম্বার নাম ঠিকানা অবশ্যই বারবার খেয়াল করে দেখবেন যেন কোন ভুল না থাকে। এখান থেকে আমরা জানতে পারলাম পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে পাঁচশত টাকা লাগে।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কিভাবে নিতে হয় 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক - পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন আর্টিকেলের এ পর্যায়ে আমরা জানবো পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কিভাবে নিতে হয়। সকল কাজ সেরে সেন্টার থেকে ডেলিভারি দেওয়া হয়। ডেলিভারি দিলে কি হবে। আপনি ইচ্ছা করলেও সেই সার্টিফিকেট ফটোকপি করে বের করে নিতে পারবেন না বা কোন কাজ দিবে না। সার্টিফিকেটটা আপনাকে থানা থেকে সংগ্রহ করতে হবে।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স হেল্পলাইন নাম্বার 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক ও পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন উক্ত আর্টিকেলটিতে এবারে জানতে পারবেন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স হেল্পলাইন নাম্বার। আমরা অনেকেই পুলিশ ক্লিয়ারেন্স হেল্পলাইন নাম্বার খুঁজে থাকি। কিন্তু সময় ক্ষেত্রে সেটা পাওয়া যায় না। এবারে জানাবো পুলিশ ক্লিয়ারেন্স হেল্পলাইন নাম্বার।

সাধারণত ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় বসবাসরত নাগরিকরা এই পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পেতে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন। যোগাযোগের ঠিকানা, ডিএমপি সদর দপ্তর, কক্ষ নম্বর ১০৯ , হেল্পলাইন নম্বর ০২-৭১২৪০০০ এবং ০১১৯১০০৬৬৪৪ ।

আরো পড়ুন ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ হ্যাক করার ১২ টি লক্ষণ

ডিএমপি হেল্প ডেস্ক ঃ ঢাকার মেট্রোপলিটন এলাকার আবেদনকারীরা আপনারা যদি সমস্যায় পড়েন তাহলে যোগাযোগ করতে পারেন এই নম্বরে। হেলপ্লাইন হেল্প লাইন ০১১৯১-০০৬৬৪৪ এবং ০২-৭১২৪০০০। কিংবা ডিএমপি ওয়ান স্টপ সার্ভিস সেন্টারে কথা বলতে পারেন। নাম্বারটি হচ্ছে ০১৭১৩৩৯৮৬৮০। এই নাম্বারে কথা বলুন।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক ও পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন এই আর্টিকেলটিতে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক এবং পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক এই আর্টিকেলটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই শেয়ার করবেন। এ ধরণের আরো নতুন নতুন আর্টিকেল পেতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন। ২৩২৬১

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url